Shahi Jira (শাহী জিরা)

৳ 365.00৳ 1,460.00

Description

Shahi Jira (শাহী জিরা)

শাহী জিরা সুগন্ধি একটি মসলা। এর আদি উৎপত্তিস্থল ইউরোপ। এশিয়া, ভারত, উত্তর আফ্রিকায় শাহী জিরার চাষ হয়। এর গুণাগুণ সম্পর্কে প্রাচীন মিশর, গ্রীস এবং রুমানরা জানতো। ১৫৫২ খৃষ্টাব্দে এর ব্যবহার সম্পর্কে গ্রীক ভেষজ চিকিৎসক ডিসকরিডেস এর বিবরণ থেকে জানা যায়। রান্নার স্বাদ বাড়াতে বাঁধা কপি, ফুল কপি, গোল আলুর এবং মাংস তরকারিতে শাহী জিরা ব্যবহার করা হয়। শাহী জিরা খুবই উন্নতমানের এবং অর্গানিক পদ্ধতিতে চাষের কারণে এটা সম্পূর্ণ বিষমুক্ত। স্বাস্থ্যগত জিরার উপকারিতা এবং রান্নার স্বাদ ও ঘ্রাণ বাড়াতে মশলা হিসেবে জিরা প্রাচীনকাল হতেই রান্নার কাজে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। শুধু তরকারির ঘ্রাণ কিংবা স্বাদ বাড়াতে নয়, জিরাতে আছে বহুমুখী স্বাস্থ্য উপকারিতা। প্রাচীনকাল হতে বিভিন্ন রকম রোগ সারাতে প্রাকৃতিক ঔষধ হিসেবে জিরা ব্যবহার হয়ে আসছে।

বিভিন্ন রকম পেটের পীড়া, ত্বক, চুলের যত্নে জিরা বেশ উপকারি একটি মশলা।

জিরার পুষ্টিগুণ

কিছু কিছু গবেষণায় দেখা গেছে যে, জিরায় মধ্যে আমাদের স্বাস্থ্য রক্ষার্থে কিছু গুরুত্বপূর্ণ উপাদান রয়েছে। জিরাতে আছে আয়রণ, ভিটামিন,

অ্যান্টি কার্সিনোজেনিক প্রপাটিজ, মিনারেল, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ইত্যাদি উপাদান।

জিরার উপকারিতা

নানা রকম পুষ্টিগুণ সহ জিরাতে রয়েছে রান্নার সুঘ্রাণি টেস্ট। এছাড়াও শরীরের বিভিন্ন রোগকে প্রশমিত বা হ্রাস করার জন্য জিরার উপকারিতা রয়েছে ব্যাপক। তেমনি এখন আমরা এমন কিছু জিরার ‍স্বাস্থ্যগুণাগুণ বা উপকারিতা সম্পর্কে জানবো যা হয়তো অনেকেরই পূর্বে অজানা ছিল। চলুন জানা যাক জিরার উপকারিতাগুলো-

লিভার Liver ভালো রাখে জিরা

আমাদের লিভার ভালো রাখতে হলে লিভারের ভেতর হতে ক্ষতিকর টক্সিন পদার্থ বের করে দিতে হবে। কেউ যদি নিয়মিত জিরা পানিতে ভিজিয়ে জিরার পানি খেয়ে থাকে, তাহলে জিরার পানি শরীরে ডায়াজেস্টিভ এনজাইমের পরিমাণ বাড়ায়। ফলে লিভারের ভেতরে থাকা ক্ষতিকর টক্সিন পদার্থগুলো শরীর থেকে বের হয়ে যায়। যার ফলে লিভার তার কার্যক্ষমতা পুনরায় ফিরে পায় এবং লিভার ভালো থাকে।

জিরা ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে

আমাদের শরীরে যখন ইলোকট্রোলাইট এবং পটাশিয়ামের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে না থাকে তখন কিন্তু আমাদের ব্লাড প্রেসারও নিয়ন্ত্রণে থাকে না। আপনি যদি প্রতিদিন সকালে ভোর বেরা একগ্লাস করে জিরা পানি নিয়মিত খান, তাহলে শরীরের ইলোকট্রোলাইট এবং পটাশিয়ামের মাত্রা বেশ নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। ফলে এমনিতেই ব্লাড প্রেসার লো হতে বা কমতে শুরু করবে। সুতরাং ব্লাড প্রেসার কমাতে প্রতিদিন সকালে একগ্লাস জিরা পানি খাওয়ার চেষ্টা করুন।

জিরা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে

জিরাতে রয়েছে যতসামান্য অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং প্রচুর পরিমাণে আয়রণ। জিরা খাওয়ার পর আমাদের শরীরে আয়রণের ঘাটতি পূরণ হয়। আয়রণ শরীরের প্রবেশের পর আমাদের রক্তে লোহিত কণিকা বৃদ্ধি করে। ফলাফলসরূপ আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। জিরা খাওয়ার পর পূর্বের চেয়ে প্রচুর পরিমাণে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এতে করে অন্য যেকোনো রোগ-বালাইকে সহজেই গ্রাস করে ফেলতে পারে।

হজম শক্তি বাড়াতে জিরা

আমাদের অনেকেরই বদ-হজম জাতীয় রোগটা আছে। তাদের শরীরের দূষিত গ্যাস উৎপন্ন হওয়ার মাধ্যমে বদ হজমের সৃষ্টি হয়। আপনার যদি এই জাতীয় সমস্যা থাকে তাহলে আজ থেকেই জিরা খাওয়া শুরু করুণ। কীভাবে খাবেন? প্রতিদিন সকালবেলা এক গ্লাস পানিতে পরিমত জিরা ভিজিয়ে রাখুন এবং সকাল বেলা সেই জিরা পানি খেয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত পান করুন। এতে করে আপনার বদ-হজম দূর হবে এবং হজম শক্তি বৃদ্ধি পাবে।

জিরা ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে

জিরাতে আছে পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, সেলোনিয়াম, কপার এবং ম্যাঙ্গানিজ। প্রতিদিন  যখন আমরা খাবারের সাথে জিরা পানি পান করি, তখন উক্ত উপাদানগুলো আমাদের ত্বকের ভেতরে থাকা ক্ষতিকর টক্সিনগুলো বের করে দেয়। টক্সিন জাতীয় পদার্থগুলো বের হয়ে যাওয়ার ফলে ত্বকের মধ্যে টান টান ভাব চলে আসে এবং পূর্বের চেয়ে ত্বকের সৌন্দর্য অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বৃদ্ধি পায়।

ওজন নিয়ন্ত্রণে জিরা

ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে জিরা বেশ উপকারি একটি মশলা এবং প্রাকৃতিক ঔষধ। জিরা থাকে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার। ফাইবার আমাদের দেহে প্রবেশের পর শরীরের মেটাবলিজম রেট বাড়িয়ে দেয়। এতে করে খাদ্য খুব দ্রুত হজম হতে শুরু করে। পাকস্থলিতে হজম ঠিক মতো হলে স্বাস্থ্য বাড়ার কোনো রকম আশঙ্কা থাকে না স্বাভাবিকভাবে। এছাড়াও ফাইবার খাবারকে পেটে অনেকক্ষণ ধরে রাখে। ফলে বার বার খাওয়ার ইচ্ছা জাগে না। এতে করে স্বাস্থ্য বৃদ্ধি হয় না এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে।

চুলকে সুন্দর করে

দূষিত পরিবেশে কিংবা অনিয়ন্ত্রিত পরিবেশে আমাদের চুলের অবস্থা খুবই বাজে রকম একটা অবস্থা হয়। এমতবস্থায় চুল রক্ষার্থে আমরা নানা রকম পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকি। কিন্তু আশানুরূপ কোনো রকম ফলাফল পাই না। তবে আমরা জিরা থেকে এই উপকরনটি পেতে পারি। প্রথমে জিরাকে পাউডার করে নিতে হবে। এরপর ১চা চামচ জিরার পাউডারের সাথে একটি ডিম মিক্স করতে হবে। এবার মিশ্রণটিকে ভালোভাবে চুলে লাগিয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে ১-২বার ব্যবহার করুন, এরপর চুলগুলো ধুয়ে ফেলুন। এখন দেখুন চুল গুলো পূর্বের চেয়ে অনেক স্মার্ট এবং সিল্কি ভাব চলে আসছে।

জিরা চা এর উপকারিতা

স্বাভাবিকভাবে আমরা সকলেই মোটামোটি চা খেয়ে থাকি। কিন্তু একজন স্বাস্থ্য সচেতন মানুষ অবশ্যই চাইবে চা-য়ে ভিন্নতা নিয়ে আসতে। বর্তমানে অনেক প্রকারের চা পাওয়া যায়। তবে মশলা হিসেবে জিরার চা সম্পর্কে অনেকেই জানি না। জিরার চায়ের উপকারিতা অনেক। জিরা চা এর ‍উপকারিতাগুলো হলো-

  • ওজন হ্রাসে সহায়তা করে
  • কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে
  • শরীরের শক্তি উৎপন্ন করে

    জিরা চিবিয়ে খাওয়ার উপকারিতা

    জিরা চিবিয়ে খাওয়ার মাধ্যমে বেশ অনেকগুলো উপকারিতা পেতে পারি। এর মধ্যে কয়েকটি উপকারিতা হলো-

    • দাঁত পরিষ্কার হতে সহায়তা করে থাকে
    • অতিরিক্ত ফাইবার পাওয়া যায়
    • ফাইবার বেশি থাকায় হজমে সহায়তা করে

Additional information

Weight N/A
Size

100gm, 250gm, 500gm, 1 KG

Reviews

There are no reviews yet.

Only logged in customers who have purchased this product may leave a review.